বাংলার মুখ


পাখি পল্লীর কথা

পাখি পল্লীর কথা


আহসানুল আলম সাথী : পাখি। রং-বেরঙের। নানা জাতের। এ যেন পাখিদের অভয়ারন্য। দৃষ্টি নন্দন এই পাখিদের বসবাস আমাদের নিকট দূরুত্বে। না দেখলে বিশ্বাসই হবে না এত পাখি কোথায় থাকে,  কোথা থেকে সাঁঝবেলা ফিরে আসে। নীলাকাশ পাড়ি দিয়ে স্রোতের মত ফিরে আসে দল বেঁধে। পুকুর পাড়ের বাঁশ বাগানটার মাথায় চাঁদ না


পাখি পল্লীর কথা

পাখি পল্লীর কথা


আহসানুল আলম সাথী : পাখি। রং-বেরঙের। নানা জাতের। এ যেন পাখিদের অভয়ারন্য। দৃষ্টি নন্দন এই পাখিদের বসবাস আমাদের নিকট দূরুত্বে। না দেখলে বিশ্বাসই হবে না এত পাখি কোথায় থাকে,  কোথা থেকে সাঁঝবেলা ফিরে আসে। নীলাকাশ পাড়ি দিয়ে স্রোতের মত ফিরে আসে দল বেঁধে। পুকুর পাড়ের বাঁশ বাগানটার মাথায় চাঁদ না


ঘুরে আসুন প্রবাল দ্বীপ সেইন্ট মার্টিন

ঘুরে আসুন প্রবাল দ্বীপ সেইন্ট মার্টিন


“ও আমার বাংলা মা তোর আকুল করা রূপের সুধায় হৃদয় আমার যায় জুড়িয়ে।।” এ কথার সত্যতা যথাযথভাবে বোঝা যায় যখন আমার প্রাণের দেশ, বাংলাদেশের নানান জায়গার দর্শনীয় রূপ আমাদের মুগ্ধ করে। এমনই একটি স্থান বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেইন্ট মার্টিন। স্থানীয় জনগণের কাছে এটি ‘নারিকেল জিঞ্জিরা’ নামেই বেশি পরিচিত। সাধারণত নভেম্বর থেকে মার্চ-


পাহাড়ে পর্যটনে দুঃসময়

পাহাড়ে পর্যটনে দুঃসময়


বিজয় ধর,রাঙামাটি পর্যটনের টিকেট কাউন্টারের গেটম্যান থেকে শুরু করে ব্যবস্থাপক, কারো মুখেই হাসি নেই, নেই স্বাভাবিক আচরণও। মন্দা ব্যবসার প্রতিচ্ছবিই যেনো তাদের চোখে মুখেই। অথচ মাত্র মাস তিনেক আগেই ঠিকই ছিলো বিপরীত চিত্র। উপচে পড়া পর্যটক, টিকেট কাটায় হুড়োহুড়িতে নিঃশ্বাস ফেলার সময় ছিলো না, গেটম্যান, রেস্তোরাঁর কর্মচারি, বোটঘাটের ম্যানেজার কারোই। অথচ


কালের আবর্তে হারিয়ে যাচ্ছে বাবুই পাখি

কালের আবর্তে হারিয়ে যাচ্ছে বাবুই পাখি


রিপন গোয়ালা অভি, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি ।। তাল গাছ এক পায়ে দাঁড়িয়ে, সব গাছ ছাড়িয়ে, উঁকি মারে আকাশে কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘তাল গাছ’ কবিতার সেই তাল গাছের সাথে কবি রজনীকান্ত সেনের ‘বাবুই পাখিরে ডাকি বলিছে চড়াই, কুঁড়ে ঘরে থাকি কর শিল্পের বড়াই, কালজয়ী সেই কবিতার বাবুই পাখি খুঁজে নিয়েছে নিরাপদে বেঁচে



>