মুখোমুখি


অনেক দূরে যেতে চাই: ইরিনা পারভীন

অনেক দূরে যেতে চাই: ইরিনা পারভীন


ইরিনা পারভীন প্রতিবেশীরা তাকে দেখে হাসিঠাট্টা করতেন। কত যে বাজে কথা শুনিয়েছেন সেই হিসাব নেই! হতাশায় খেলাই ছেড়ে দিতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু পরশু জুনিয়র আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টনে ত্রিমুকুট জিতে যেন নতুন জীবন পেলেন সেনাবাহিনীর এই শাটলার। *ঘরোয়া টুর্নামেন্টে তেমন সাফল্য নেই। অথচ বড় মঞ্চে খেলতে নেমেই ত্রিমুকুট জিতলেন। কেমন লাগছ? ইরিনা পারভীন: এবারের


আঃ গনি রিকশাচালক- বরগুনা

আঃ গনি রিকশাচালক- বরগুনা


চাচা, কোথায় থাকেন? থাকি সোনাখালি আমাগো বাড়িতে। আগে থাকতাম ঢাকার রামপুরার একটা বস্তিতে। একটা রুমের মধ্যে কোন রকম চাইর জন গাদাগদি কইরা থাকতাম। ছোট একটা রুম তাও আবার ১৬০০ টাকা ভাড়া দিতে হইতো। যা ইনকাম তা দিয়া হেই ঘর ভাড়া দিয়া পোষাইতো না। সবকিছুর দাম বাইরা গেছে। কামাই কইরা কূল পাইতাম



>