জলবায়ু পরিবর্তনে উপকূল এলাকায় সবচেয়ে ঝুকিতে নারী ও শিশুরা


জলবায়ু পরিবর্তনে উপকূল এলাকায় সবচেয়ে ঝুকিতে নারী ও শিশুরা


খুলনা নিউজ :
দূর্যোগ আসার খবর পাইলে ও সাইক্লোন সেন্টারে যাই না । বাচচা-কাচচা নিয়ে আল্লার ওপর ভরসা করে ঘরেই থাকি । যা হওয়ার হবে । সাইক্লোন সেন্টার অনেক দুরে । তাছাড়া মহিলাদের জন্য আলাদা কোন ব্যবস্থা নেই । থাকতে হয় বেটা মানুষদের সাথে । সে কারনে সাইক্লোন সেন্টারে যাই না । এভাবে আবেগের সাথে বলছিলেন দাকোপ উপজেলার নলিয়ানের গৃহবধুহালিমা বেগম । এমন অভিযোগ শুধু হালিমার নয় একই এলাকার গৃহবধু রুবির অভিযোগ সাইক্লোন সেন্টারের বখাটের নানা প্রকার অত্যাচারের কারনে সাইক্লোন সেন্টারে না যাওয়ার অনিহার কথা । এমন অভিযোগ উপকূল এলাকার জলবায়ু পরিবর্তনে দূর্যোগ কালীন অধিক ঝুকিতে থাকা নারী ও শিশুদের ।
জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুকিতে থাকা দেশ গুলির মধ্যে বাংলাদেশ সবচেয়ে বিপদাপন্ন। প্রতিবছরই জলবায়ূ পরিবর্তন জনিত প্রভাবে সৃষ্ট দূর্যোগে জীবণ-জীবিকা, অবকাঠামো ও সম্পদ হানির সম্পুখীন হচ্ছে উপকুলবাসী। জলবাযু পরিবর্তনের প্রভাবে উপকূল এলাকায় বাড়ছে দারিদ্রতা। আর এসব কারণে এসব অঞ্চলের নারী ও শিশুদের স্বাস্থ্য ঝুকির পাশাপাশি কমছে সামাজিক নিরাপত্তা ।
ভৌগলিক অবস্থা, বর্ধিত জনসংখ্যা ও মানবসৃষ্টি দূর্যোগের পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে প্রতিনিয়ত ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছাস, নদী ভাঙ্গন, লবনাক্ততা বৃদ্ধির ফলে মারাতœক স্বাস্থ্য ঝুকির মধ্যে রয়েছে উপকুলবাসী। দুর্যোগের ফলে এসব অঞ্চলে বিনষ্ট হচ্ছে কর্মসংস্থান কমছে খাদ্য উৎপাদন, বাড়ছে পানীয় জলের সংকট সৃষ্টি হচ্ছে খাদ্য ও পুষ্টির অভাব।
জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সৃষ্ট দূর্যোগ, দারিদ্রতা ও আর্থসামাজিক অবস্থার ফলে সবচেয়ে ঝূকির মধ্যে রয়েছে এ অঞ্চলে শিশু ও নারীরা। দূর্যোগকালীন সময়ে সেনিটেশনের সমস্যা, আশ্রয়কেন্দ্রের অনিরাপদ পরিবেশ ও বখাটেদের হয়রানীর কারণে নারীরা র্দীর্ঘ মেয়াদে মানষিক ও প্রজনন স্বাস্থ্য জনিত সমস্যায় ভূগতে থাকে। আইলা পরবর্তী সময়ে খুলনার দাকোপ উপজেলাতে পরিচালিত এক গবেষনায় এ তথ্য উঠে এসেছে।
দূর্যোগকালীন সময়ে ১৪ গুন বেশী মৃত্যুর ঝুকিতে মোকাবেলা করতে হয় উপকুলীয় নারীদের।পরিসংখ্যন অনুযায়ী ১৯৯১ সালের ঘূর্ণি ঝড়ে নিহত ১লাখ ৪০ হাজারের মধ্যে ৭৭ শতাংশ এবং ২০০৯ সালের আইলায় নিহতদের ৭৩ শতাংশই নারী।

এ ব্যাপারে বেসরকারী সংস্থা রূপান্তরের প্রকল্প সম্বনয় কারী প্রবীর বিশ্বাস বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ঝূকিতে উপকুলের যে তিন কোটি মানুষ রয়েছে তার অর্ধেক নারী। কিন্তু এ সকল নারীকে বিবেচনায় এনে এখনও পর্যন্ত তেমন কোন প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে না। তাই নারীরা অবহেলীত থাকছে এবং বিভিন্ন মানষিক ও সামাজিক জটিলতায় ভুগছে। এ বিষয়টিকে বিবেচনায় এনে নতুন প্রকল্প বাস্তবায়নের করলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভাব ।
এই ব্যাপারে খুলনার জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেন , প্রয়োজনের তুলনায় কম সংখ্যাক সাইক্লোন সেন্টার রয়েছে । যার কারনে এই সমস্যার সৃষ্ঠি হচেছ । প্রয়োজনীয় সাইক্লোন সেন্টার নির্মান হলে এই সমস্যা আর থাকবে না।



>